মাশরুমের উপকারিতা | জেনে নিন মাশরুম দিয়ে স্বাস্থ্যকর খাবার তৈরির নিয়ম
Cart
অর্গানিক খাদ্য রেসিপি

মাশরুম দিয়ে নানান মুখরোচক খাবার তৈরির নিয়ম (পর্ব-২)

মাশরুমের উপকারিতা

ইতিপূর্বে মাশরুম রেসিপি নিয়ে আমরা একটি পোষ্ট করেছি যেখানে মাশরুম দিয়ে চারটি বিশেষ খাবার- মাশরুম ফ্রাই, মাশরুম সবজি, মাশরুম সালাদ এবং চিংড়ি মাশরুম তৈরির নিয়ম বর্ণনা করা হয়েছে। আজ তার দ্বিতীয় পর্ব যেখানে আমরা আরও চারটি মাশরুম দিয়ে তৈরি খাবার বানানোর নিয়ম জানবো। তবে তার আগে চলুন কিছু মাশরুমের উপকারিতা জেনে নেওয়া যাক।

মাশরুমের উপকারিতা

মাশরুমকে আমরা সবাই চিনি ছত্রাক জাতীয় উদ্ভিদ হিসেবে। একই সঙ্গে এটি অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর খাবারও বটে। মাশরুমে পেনিসিলিন নামক অ্যান্টিবায়োটিক থাকে যা মানুষের জন্য বেশ উপকারী এবং এটি খেতে খুবই মজা। তাই প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় মাশরুম রাখা উচিত। তবে শুধু অর্গানিক বা জৈব ভাবে উৎপন্ন মাশরুম খেতে হবে। বুনো জায়গায় উৎপন্ন মাশরুম অবশ্যই গ্রহণ করা নিষেধ। এতে আছে প্রোটিন, ভিটামিন, মিনারেল, অ্যামাইনো এসিড, অ্যান্টিবায়োটিক ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। চলনু জেনে নেয়া যাক মাশরুমের সাস্থ্যকর দিকগুলো-

  • মাশরুমে কোলেস্টরেল কমানোর অন্যতম উপাদান ইরিটাডেনিন, লোভাষ্টটিন, এনটাডেনিন, কিটিন এবং ভিটামিন বি,সি ও ডি থাকায় নিয়মিত মাশরুম খেলে উচ্চ রক্তচাপ (হাই ব্লাড প্রেসার) ও হৃদরোগ নিরাময় হয়।
  • মাশরুমের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম,ফসফরাস ও ভিটামিন-ডি আছে। শিশুদের দাঁত ও হাড় গঠনে এই উপাদানগুলো অত্যন্ত কার্যকরী।
  • ক্যান্সার ও টিউমার প্রতিরোধে মাশরুম বেশ উপকারী।
  • হেপাটাইটিস বি ও জন্ডিস প্রতিরোধ করে। অ্যানিমিয়া বা রক্তস্বল্পতা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।
  • খাদ্য হজম করতে সাহায্য করতে মাশরুম সাহায্য করে।
  • মাশরুমে নিয়াসিন ও রিবোফ্লাবিন থাকে যা ত্বকের জন্য উপকারী। এই ছত্রাকে ৮০-৯০ ভাগ পানি থাকে যা ত্বককে নরম ও কোমল রাখে।
  • আমাশয় নিরাময় করতে মাশরুমের উপকারিতা রয়েছে।
  • মাশরুমে নিউক্লিক এসিড ও এন্টি এলার্জেন থাকায় এবং সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকায় কিডনি রোগ ও এলার্জি রোগের প্রতিরোধক।
  • মাশরুমে স্ফিংগলিপিড এবং ভিটামিন-১২ বেশি থাকায় স্নায়ুতন্ত্র ও স্পাইনাল কর্ড সুস্থ্য রাখে। তাই মাশরুম খেলে হাইপার টেনশন দূর হয় এবং মেরুদণ্ড দৃঢ় থাকে।
  • মাশরুমে পলিফেনল ও সেলেনিয়াম নামের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। এতে মানুষের শরীরের জন্য অত্যাবশ্যকীয় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সালফারও থাকে। এই অত্যাবশ্যকীয় অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলো মারাত্মক কিছু রোগ, যেমন- স্ট্রোক, স্নায়ুতন্ত্রের রোগ এবং ক্যান্সার থেকে শরীরকে রক্ষা করে।
  • মাশরুমের খনিজ লবণ দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধিতে সহায়ক।
  • মাশরুমের ফাইবার বা আঁশ পাকস্থলি দীর্ঘক্ষণ ভরা রাখতে সাহায্য করে। মাশরুম রক্তে চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে এবং ওজন কমাতে সহায়তা করে। উচ্চ ফ্যাট সমৃদ্ধ লাল মাংসের পরিবর্তে মাশরুম গ্রহণ করলে ওজন কমানো সহজ হয়। FASEB তে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা যায় যে, লাল মাংসের পরিবর্তে সাদা মাশরুম গ্রহণ করলে ওজন কমে।

এখন জেনেন নিন আরও চারটি মজাদার খাবারের রেসিপি, যা শুধু মাশরুম দিয়েই বানানো যায়!

৫. মাশরুমের চপ

উপকরণ

মাশরুম : ২০০ গ্রাম
আলু : ১০০ গ্রাম
বাঁধাকপি : ১০০ গ্রাম
ছোলার বেসন : ২৫০ গ্রাম
গাজর : ৫০ গ্রাম
পিঁয়াজ : ৫০ গ্রাম
কাঁচা মরিচ : ৫-৭ টা
লবণ: পরিমাণমত
সয়াবিন তেল : ৫০ গ্রাম

প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে আলু সিদ্ধ করে মিশিয়ে নিন। মাশরুম, বাঁধাকপি, গাজর কেটে লবণ, পিঁয়াজ, কাঁচা মরিচ দিয়ে একসাথে মিশিয়ে নিন। আলুর সাথে মিশিয়ে বল তৈরী করুন। অন্য পাত্রে বেসন গুলে নিন। চুলায় কড়াই দিয়ে তেল ঢেলে গরম করুন। বলগুলো গরম তেলে ভেজে নিন ও পরিবেশন করুন।

৬. মাশরুমের আচার

উপকরণ

মাশরুম : ২৫০ গ্রাম
রসুন : ১০ গ্রাম
আদা : ২০ গ্রাম
সরিষার গুড়া : ২০ গ্রাম
শুকনা মরিচ : ৫ গ্রাম
মরিচের গুড়া :২ গ্রাম
পিঁয়াজ : ১০০ গ্রাম
ভিনেগার : আধা কাপ
কাঁচা মরিচ : ৫-৭ টা
লবণ: পরিমাণমত
সরিষার তেল : ১০০ গ্রাম
চিনি : ১০০ গ্রাম

প্রস্তুত প্রণালী

মাশরুম টুকরো করে ৫-১০ মিনিট কুসুম গরম পানিতে ব্লানচিং করে নিন। কড়াইতে তেল গরম করে নিয়ে আদা রসুন ও পিঁয়াজ বাটা মিশিয়ে নাড়ুন। তাতে মাশরুম গুলো দিয়ে ভালভাবে মিশিয়ে নিন। তারপরে ভিনেগার, চিনি, শুকনা মশলা (মরিচ, লবণ ও সরিষার গুড়া) দিয়ে ভালোভাবে ফুটিয়ে নিন। চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে জীবাণুমুক্ত করে সংরক্ষণ করুন।

৭. মাশরুম চিকেন স্যুপ

উপকরণ

মাশরুম : ২৫০ গ্রাম
কর্নফ্লাওয়ার : ২ টেবিল চামুচ
মুরগীর স্টক : ৪ কাপ
টেস্টিং সল্ট : ৫০ গ্রাম
ডিম (কুসুম ছাড়া) : ২ টা
দুধ : ১ কাপ
বাটার : ৫০ গ্রাম
আদা : ৫০ গ্রাম
লবণ: পরিমাণমত

প্রস্তুত প্রণালী

মুরগীর স্টক তৈরী করার জন্য ৫০০ গ্রাম ওজনের একটি মুরগীর গিলা, কলিজা, মাথা ও পা বাদে ২-২.৫ লিটার পানি দিয়ে আদা ও লবণ দিয়ে সিদ্ধ করুন। সিদ্ধ হয়ে গেলে হাড়গুলো ছাড়িয়ে মাংসগুলো পানির সাথে মিশিয়ে নিন। মাশরুম হাতে ছিড়ে ব্লানচিং করে নিন। প্যানে বাটার গরম করে মাশরুম ভেজে নিন। মুরগীর স্টকে পরিমাণমতো গরম পানি মিশিয়ে (১০ জনের খাওয়ার মতো) ফুটিয়ে নিন। ভাজা মাশরুম গুলো এতে মিশিয়ে দিন। কর্ণ-ফ্লাওয়ার ঠান্ডা পানিতে গুলে দিয়ে দিন। ডিমের কুসুম আলাদা করে ফেটিয়ে নিন ও স্যুপের মধ্যে দিয়ে ভালো করে ঘুটে দিন। টেস্টিং সল্ট ও দুধ তাতে মিশিয়ে দিন, প্রয়োজনে সাধারণ লবণ দেওয়া যায়। নামিয়ে সস মিশিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

৮. মাশরুমের কোপ্তা

উপকরণ

মাশরুম : ২৫০ গ্রাম
বেসন : ৩ টেবিল চামচ
হলুদ গুঁড়ো : আধা চা চামচ
মরিচ গুঁড়ো : ১ চা চামচ
লবণ : ১ চা চামচ
সয়াবিন তেল : আধা কাপ

প্রস্তুত প্রণালি :

মাশরুম পরিষ্কার করে ধুয়ে বেটে নিন। সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। প্রয়োজনে সামান্য পানি দিন। ছোট ছোট বল বানিয়ে ডুবো তেলে ভেজে তুলুন। গরম গরম পরিবেশন করুন।

ভালো মানের মাশরুম কোথায় পাবেন?

নাদিরা তার বোন জিনিয়ার কাছ থেকে অনেক ভাল ভাল মাশরুম রেসিপি জেনেছে। জেনেছে মাশরুমের উপকারিতা । কিন্তু জিনিয়া নাদিরাকে আরও একটা দরকারি তথ্য দিয়েছে। তা হচ্ছে- ভাল মানের মাশরুম কোথায় পাওয়া যায়। বাজারে যে ধরণের মাশরুম পাওয়া যায় তার অধিকাংশই ভেজালে ভর্তি এবং অতিশয় নিন্মমানের। এই ধরণের মাশরুম শরীরের উপকারের তুলনায় অপকার বেশি করবে। তাই জিনিয়া তার বোনকে পরামর্শ দিয়েছে অনলাইন ফুডশপ khaasfood.com থেকে Mushroom order করার জন্য। আপনিও খাসফুড থেকে মাশরুম কিনতে পারেন নির্দ্বিধায়। অনালাইনে অর্ডার করলে পণ্য পৌঁছে যাবে আপনার দুয়ারে।