মধুর গুনাগুন | জেনে নিন নিয়মিত মধু খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে।
Cart
খাদ্যের গুনাগুণ

মধুর স্বাস্থ্যগুন – পর্ব ১

মধুর গুনাগুন

মধুর গুনাগুন এর কথা বলে শেষ করা যাবে না। মধুর অসংখ্য গুনাগুন আছে যা আপনার স্বাস্থ্যের সুরক্ষায় অগ্রগন্য ভূমিকা রাখতে সক্ষম। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে এ সমস্ত গুনাগুন আমাদের অনেকেরই অজানা। আজ আমরা মধুর এই সমস্ত গুনাবলি সম্পর্কে জানবোঃ

মধুর গুনাগুন

# রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়ায়:

মধু শরীরের রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়ায় এবং শরীরের ভেতরে এবং বাইরে যে কোনো ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ প্রতিরোধ করার ক্ষমতাও যোগান দেয়। মধুতে আছে এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধকারী উপাদান, যা অনাকাঙ্ক্ষিত সংক্রমণ থেকে দেহকে রক্ষা করে।

# হৃদরোগে:

এক চামচ মৌরি গুঁড়োর সাথে এক বা দুই চামচ মধুর মিশ্রণ হৃদরোগের টনিক হিসেবে কাজ করে। এটা হৃদপেশিকে সবল করে এবং এর কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

# ওজন কমাতে:

মধু খেলে পাকস্থলী থেকে বাড়তি গ্লুকোজ তৈরি হয় যার জন্য মস্তিষ্কের সুগার লেভেল বেড়ে যায় এবং মেদ কমানোর হরমোন নিঃসরণের জন্য রীতিমতো চাপ সৃষ্টি করে। ফলে মেদ কমার সুযোগ তৈরি হয়।

# অনিদ্রায়:

মধু অনিদ্রার ভালো ওষুধ। রাতে শোয়ার আগে এক গ্লাস পানির সঙ্গে দুই চা চামচ মধু মিশিয়ে খেলে এটি গভীর ঘুম এবং সম্মোহনের কাজ করে।

# কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে:

মধুতে রয়েছে ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স যা ডায়রিয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। আবার, ১ চা চামচ খাঁটি মধু ভোরবেলা পান করলে কোষ্ঠবদ্ধতা এবং অম্লত্ব দূর হয়।

# পাকস্থলীর সুস্থতায় :

মধু পাকস্থলীর কাজকে জোরালো করে এবং হজমে সাহায্য করে। এর ব্যবহার হাইড্রোক্রলিক এসিড ক্ষরণ কমিয়ে দেয় বলে অরুচি, বমিভাব, বুক জ্বালা এগুলো দূর করা সম্ভব হয়।

কুরআন হাদীস অনুযায়ী মধুর গুনাগুন

মধু যে আমাদের শরীরের জন্য কতটা জরুরী, তার একটি প্রমান হচ্ছে- কুরআন হাদীসেও মধুর অনেক গুনাগুন সম্পর্কে বলা হয়েছে। অথচ এ বিষয়ে আমাদের অনেকেরই অজানা। এ নিয়ে খাসফুড ব্লগে একটি বিস্তারিত পোষ্ট রয়েছে। পড়ার জন্য ভিজিট করুণঃ কুরআন ও হাদীস অনুযায়ী মধুর উপকারিতা 

সব ধরণের মধুই কি স্বাস্থের জন্য উপকারি?

অবশ্যই নয়! মধুর এই সমস্ত গুণাবলি রয়েছে ঠিকই, কিন্তু বাজারে পাওয়া যায় এমন সব ধরণের মধু আপনার স্বাস্থ্যের জন্য উপকারে আসবে না। বাজারে যে সমস্ত ভেজালযুক্ত মধু পাওয়া যায়, তা আমাদের উপকারের চেয়ে অপকার বেশি করবে। শুধু মাত্র মৌচাক থেকে কেটে নেওয়া টাটকা মধু খাওয়ার জন্য আমাদের উপকারে আসতে সক্ষম। কিন্তু খাঁটি মধু কোথায় পাবেন এটাও একটা মহা চিন্তার বিষয়।

আলহামদুলিল্লাহ্‌, বাজারের অনেক অনেক মধুর ভীড়ে আসল-নকল যখন চেনা দায় তখন Khaas Food পরিবার চেষ্টা করছে আসল স্বাদের, ভেজালমুক্ত সুন্দরবনের মধু সরবরাহ করতে। বিশ্বস্ত মৌয়াল দ্বারা সংগ্রহ করা এ মধু আমরা নিজেরা ও যারা আসল মধু চেনেন সেই সকল মানুষদের খাইয়ে, তাঁদের পরামর্শে আপনাদের জন্য ঢাকায় নিয়ে এসেছি।

ভেজালমুক্ত খাবার কোথায় পাবেন- এই নিয়ে যারা চিন্তিত; বাংলাদেশের একমাত্র নিরাপদ খাবারের অনলাইন শপ খাসফুড আছে তাদের পাশে। সুন্দরবনের মধু সহ বিভিন্ন প্রকারের খাঁটি মধু পেতে আজই ভিজিট করুন www.khaasfood.com এ।